৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা

মাগুরা সদর উপজেলার সত্যপুর গ্রামের পিতৃহীন এক কিশোরী ধর্ষণের চেষ্টার শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়।

এই ঘটনার চার দিন পর মামলা করে কিশোরীর মা ।

এর মাঝে এক বিঘা জমির বিনিময় মীমাংসা করতে চান গ্রামের ক্ষমতাধরসীন মহল।

অভিযুক্ত মোজাম্মেল হোসেনকে (৫৫) পুলিশ গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত সোমবার (৬ এপ্রিল) দুপুরে ষষ্ঠ শ্রেণির ওই ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে মোজাম্মেল হোসেন।

কিশোরীর চিৎকার শুনে গ্রামের এগিয়ে আসলে ধর্ষক মোজাম্মেল হোসেন দৌড়ে পালায়।

পরে গ্রামের লোক মোজাম্মেল হোসেনকে ধরতে পারিনি।

এদিকে ধর্ষণের চেষ্টার জানাজানি হলে,
মোজাম্মেল হোসেন স্থানীয় মঘি ইউনিয়নের 2 নং ওয়ার্ডের সদস্য আব্দুল হাকিম সহ কয়েকজন এর মাধ্যমে এই ঘটনাটি মীমাংসা করতে চান।

মোজাম্মেল হোসেন প্রস্তাব পাঠান,
যদি থানায় কোনো মামলা না করা হয় তাহলে ওই মেয়ের নামে এক বিঘা জমি দেবেন তিনি মোজাম্মেল হোসেন।

পরে গ্রামের মাতব্বরদের নজর এড়িয়ে থানায় গিয়ে মামলা করেন কিশোরীর মা।

মাগুরা সদর থানার ওসি জানায়, থানায় মামলা করা হয়েছে
এবং অপরাধীকে আইনের আওতায় আনার চেষ্টা করা হচ্ছে।

Articles You May Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *