৪ পাকিস্তানি-কানাডিয়ান হত্যাকে ‘সন্ত্রাস’ আখ্যা দিয়ে ইমরান খানের নিন্দা

কানাডার একটি অভি’বাসী পরিবারের চার সদস্যকে হত্যা করাকে ‘সন্ত্রাস’ আখ্যা দিয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান নিন্দা জানিয়ে’ছিল।একটি আপাত পিকআপ ট্রাক হামলার ঘটনা মনে করা হলেও এটিকে ইসলাম’বিদ্বেষী সন্ত্রাসবাদীদের মুসলমানদের লক্ষ্য করে উদ্দেশ্য’মূলক কাজ বলে অভিহিত করেছেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। -খালিজ টাইমস

প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান টুইটারে বলেন, এই আক্রমণ পশ্চিমা দেশ’গুলোর ক্রমবর্ধমান ইসলাম’ফোবিয়া প্রকাশ করেছে। ইমরান খান জানিয়েছেন, তিনি এই ঘটনায় খুবই আহত হয়েছেন। পশ্চিমা দেশ’গুলোতে ক্রমাগত ইসলামভীতি বেড়ে যাওয়ার ঘটনায় তিনি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন। কানাডিয়ান কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তারা অন্টারিও প্রদেশের লন্ডন শহরের একটি চৌ’রাস্তায় কালো পিকআপ ট্রাকে কাটা পরে ক্ষতি’গ্রস্থদের আঘাত করার পরে কাছের মলের পার্কিংয়ে গ্রেপ্তার হওয়া ২০ বছর বয়সী ব্যক্তির বিরুদ্ধে সম্ভাব্য সন্ত্রাসবাদের অভিযোগ তদন্ত করছে।

মৃত ব্যক্তি সালমান আফজাল (৪৬), তাঁর স্ত্রী মাদিহা (৪৪), তাদের মেয়ে ইউমনা(১৫) এবং ৭৪ বছর বয়সী তাদের দাদী যার নাম জানা যায়নি বলে চিহ্নিত করে একটি বিবৃতি জারি করেছে তাদের পরিবার। এছাড়া ফয়েজ নামে এক বালক’কে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানা যায়।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “সালমান এবং আফজাল পরিবারে’র বাকি সবাইকে যারা জানেন, তারা জানেন যে তারা মুসলিম, কানাডিয়ান এবং পাকিস্তানি হিসাবে যে আদর্শ পরিবার ছিলেন।” “তারা তাদের জীবনে অত্যন্ত কঠোর পরিশ্রমী এবং এভাবে তারা দক্ষতা অর্জন করেছে। তাদের শিশুরাও তাদের স্কুলে শীর্ষ শিক্ষার্থী ছিল এবং আধ্যা’ত্মিকতা তাদের পরিচয়ের সাথে সংযুক্ত ছিল।”

প্রতিবেশী_বন্ধুরা বলেন যে, পরিবারটি ১৪ বছর আগে কানাডায় এসেছিল। তাদের একটি তহবিল সংগ্রহ’কারী ওয়েবপৃষ্ঠায় বলা হয়েছে যে, বাবা একজন ফিজিওথেরাপিস্ট এবং ক্রিকেট প্রেমিক ছিলেন এবং তাঁর স্ত্রী লন্ডনের ওয়েস্টার্ন ইউনি’ভার্সিটিতে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পিএইচডি করছিলেন। তাদের কন্যা নবম শ্রেণি শেষ করছিল এবং দাদী ছিলেন পরিবারের “স্তম্ভ”, পৃষ্ঠাটিতে বলা হয়েছিল। পরিবার তার বিবৃতিতে বলেছে যে, জন’সাধারণকে ঘৃণা ও ইসলাম’ফোবিয়ার বিরুদ্ধে দাঁড়ানো দরকার। সন্ত্রাসের ঘটনাটি যে যুবক করেছিলেন, তিনি তার সাথে জড়িত একটি গোষ্ঠী দ্বারা প্রভাবিত হন এবং আমাদের সরকারের উচ্চ পর্যায় থেকে শুরু করে সম্প্রদায়ের প্রতিটি সদস্যকে কমিউনিটির বাকী সদস্যদের পক্ষে অবস্থান নিতে হবে।

Articles You May Like

Leave a Reply

x