হিন্দু কাকিকে ধর্ষণ করতে গিয়ে ধরা যুবক

গলায় ধারালো অস্ত্র ঠে’কিয়ে কাকিকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ উঠল ভাতিজার বিরুদ্ধে। এ সময় দুই’জনই গুরুতর আহত হন।

ঘটনা ঘটেছে ভারতের পূর্ব বর্ধ’মানের কালনার উসমানপুর গ্রামে।

অভিযোগ, গলায় ব্লেড ঠেকিয়ে কাকি’মাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে ভাসুরপো। ব্লেড কেড়ে নিতে গেলে ধস্তা’ধস্তি বাধে দুজনের মধ্যে। ধস্তাধস্তিতে জখম হয় ওই গৃহবধূ ও যুবক দু’জনেই। নির্যাতিতার হাতের আঙুলে গভীর আঘাত লাগে। অন্য’দিকে অভিযুক্তের বাঁ পায়ে ব্লেডের আঘাতে ক্ষত হয়।

অভিযোগ, এই প্রথম’বার নয়। বিয়ের পর থেকেই কাকি’মাকে লাগাতার কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল ভাসুরের ছেলে। কেউ না থাকলে ফাঁকা বাড়িতে ঢুকে পড়ত ঘরে। নির্যাতি’তার অভিযোগ, স্বামী মৃণাল শেখকে নালিশ করেও কোনও লাভ হয়নি। শেষে একবার ভাসুরপোকে নিজের ঘরেই তালা’বন্দি করে রাখেন তিনি।

নির্যাতিতা গৃহবধূ বলেন, “আমাকে পিছন থেকে জড়িয়ে ধরে মাটি’তে ফেলে দেয়। তারপর গলায় ব্লেড ধরে।” সম্ভ্রম বাঁচাতে ভাসুরে’র ছেলের ধস্তাধস্তি বেঁধে যায় ওই গৃহ’বধূর। ধস্তাধস্তিতে ব্লেডের আঘাতে জখম হয় অভি’যুক্ত যুবক।

Leave a Reply

x