হট ফটোশুটে উত্তাপ ছড়ালেন “মাহিয়া মাহি”…!

হট ফটোশুটে উত্তাপ ছড়ালেন “মাহিয়া মাহি”…!

মাহিয়া মাহি এখন চলচ্চিত্রের অন্যতম শীর্ষ নায়িকা। নিজের প্রথম চলচ্চিত্র ঢা’লিউডের ব্যবসা সফল ছবির তালিকায় স্থান করে নেয়। এই চঃলচ্চিত্রের নায়িকা হয়ে ওঠার পেছনের গল্পই ছিল অন্যরকম

তিনি ভাবতেও পারেন নি যে, আজকের অভিনেত্রী মাহি হয়ে উঠবেন। অথচ শু’রুটা ছিল শুধু একটা টেলিভিশন বিজ্ঞাপনে কাজ করবেন।

২০১০ সালের, ঘটনা। মাহির মাথায় চেপে বসে মডেল হওয়ার বাসনা। মাকে জানান নিজের ই’চ্ছার কথা। মা কিছুটা দ্বিধাগ্রস্ত দেখে মাহি বলেন, ‘আম্মু, মাত্র একটা বিজ্ঞাপন করতে চাই, আমার ই’চ্ছা টেলিভিশনের পর্দায় নিজেকে দেখার।’

ছবি তোলার জন্য পোজ দি’চ্ছেন মাহিয়া মাহি। মেয়ের ইচ্ছা মেনে নেন মা। কিন্তু মাহির বাবা রাজি হবেন? এ নিয়ে মা-মেয়ে দুজনেই দ্বি’ধায় ছিলেন। মা-মেয়ের প্রচেষ্টায় মাহি ‘ভালোবাসার রঙ’ চ’লচ্চিত্রে সুযোগ পাওয়ার পর বাবাও রাজি হয়ে যান।

ইচ্ছা হলেই তো টিভি ক’মার্শিয়ালে কাজ করার সুযোগ হয় না। কিন্তু মাহির ইচ্ছা বাস্তবে রূপ না পাওয়া পর্যন্ত যেন শান্তি নেই! মাহি দুরন্ত ও মে’ধাবী। যেটা চান সেটা করেই ছাড়েন।

শুটিংয়ের আগে মা’হির হট লুক। গান শেখার ইচ্ছা হলো ছেলেবেলায়, দ্রুত শিখে ফেললেন। নাচ শে’খার ইচ্ছা, তাও দ্রুত শিখে ফেলেন। অ’ভিনয়ও আয়ত্ত করেন হাই স্কুলে পড়ার সময়। এসব কারণে মাহির আত্মবিশ্বাস ছিল, তিনি পারবেন।

নিজের কিছু ছবি নিয়ে বি’ভিন্ন বিজ্ঞাপনী সং’স্থায় জমা দিলেন। তখন জাজ মাল্টিমিডিয়াকেও তাঁরা বিজ্ঞাপনী সংস্থা মনে করতেন। সেখানেও ছ”বি জমা দিলেন। এর পর অপেক্ষা ডাক আসার!

বেশি দিন অপেক্ষা ক’রতে হয়নি তাঁকে। জাজ মাল্টিমিডিয়া থেকে মাহিকে ডাকা হয়। কিন্তু কে জানত তাঁর প্রত্যাশা সীমানা ছা’ড়িয়ে যাবে জাজের প্রস্তাবে! তারা মাহিকে নিয়ে বিজ্ঞাপন নয়, একটি বিগ বাজেটের সিনেমা করতে চায়।

তাঁর বিপরীতেও ন’তুন মুখ। প্রথমবারেই সিনেমায় অভিনয়! বিশ্বাসই হচ্ছিল না মাহির। সেদিন রাতে বাসায় এসে আর ঘুমাতেই পা’রেননি মাহি। আর এভাবেই বিজ্ঞাপন করতে এসে মাহি হয়ে যান চলচ্চিত্রের নায়িকা।

মাহির রূপে মু’গ্ধ হবে যে কেউ। শুটিংয়ের প্রয়োজনে কিংবা বিভিন্ন ফটোশুটে এই অ’ভিনেত্রীর তোলা ছবি উত্তাপ ছড়িয়ে দেয় ভ’ক্তদের মাঝে।

Leave a Reply

x