সড়ক পরিবহন আইন সঠিক হয়নি: মির্জা ফখরুল ইসলাম

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, নতুন যে সড়ক আইনটি প্রণয়ন করা হয়েছে,তা বাস্তবসম্মত হয়নি। এতে জনগণ ক্ষতির সম্মুখীন হবে। সরকারের উচিত ছিলো এই আইনটি প্রণয়ন করার আগে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের সাথে আলোচনায় বসে আইন প্রণয়ন করা।

তিনি আরো বলেন, এই সরকার জনগণের সরকার নয়, এই সরকার এক দলীয় রাজতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে চায়, কিন্তু বাংলাদেশের জনগণ তা কখনো হতে দিবেনা।

ঠাকুরগাঁও শহরের তাতীঁপাড়ার বাসভবনে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বুধবার সকাল ১০ টায় সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।

মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, এই সরকার দেশ চালাতে ব্যার্থ, এই সরকারের আমলে পেঁয়াজ এত বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে। এই সরকারের আমলে পেঁয়াজ আর লবণের মত নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের সংকট দেখা দিয়েছে।

‘বাংলাদেশ এখন ব্যর্থ দেশ হয়ে পড়েছে, এদেশে আইনের শাসন বলে কিছু নেই।
দেশের এমন পরিস্থিতি থেকে মুক্তি পেতে প্রয়োজন গণঅভ্যুত্থান।’

তিনি আরো বলেন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে নৈরাজ্য ও অপশাসন এবং ভিসির অপতৎপরতা বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগের ছাত্র সংগঠনের নেতারা প্রতিবাদ করায় তাদেরও বের করে দেয়া হয়েছে। কারণ ভিসির নাকি রাজকীয় পরিবারের সঙ্গে মিল মহব্বত রয়েছে।’

মির্জা ফখরুল বলেন, আজকে দেশের প্রতিটি জায়গায় দূর্ণীতির আনাগোনা, এই সরকার দূর্ণীতিকে সাপোর্ট করে, দূর্ণীতির বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়না। তাইতো দেশে এত অরাজকতা সৃষ্টি হচ্ছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘৫২ থেকে ‘৯০-র গণঅভ্যুত্থানসহ সকল ধরনের যৌক্তিক আন্দোলনে ছাত্রসমাজ সবার আগে ছিলো। তাই তিনি দেশের এমন পরিস্থিতিতে ছাত্র সমাজকে পাশে দাড়ানোর আহবান জানান।

দেশের এমন ক্লান্তি কালীন মূহুর্তে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে জেলে আটকে রেখে দেশের জনগণের পাশে দাড়াতে দিচ্ছে বলে দাবী করে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম।

তিনি সরকারকে হুশিয়ারি দিয়ে বলেন, গণআন্দোলনের মাধ্যমে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বিএনপি চেয়ারপারসনকে মুক্ত করা হবে। বিএনপি সাংগঠনিকভাবে দুর্বল নয়। বন্যায় যেমন পদ্মা-যমুনা-মেঘনার দুই তীর ভাঙে। কিন্তু নদীর প্রবাহ ঠিক থাকে। বিএনপির গতি এ রূপ রয়েছে। সরকার বিএনপির পেছনে টিকটিকি লাগিয়ে দিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করছে মাত্র।

Articles You May Like

Leave a Reply

x