এরপরই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার চূড়ান্ত প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৪ আগস্ট) থেকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শতভাগ শিক্ষককে উপস্থিত থাকতে নির্দেশনা দিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর। এছাড়া প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের নির্দেশনায় প্রত্যেক উপজেলার প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারের নির্দেশক্রমে দেশের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অফিস খুলতে শুরু করেছে।

এ বিষয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা দিলে আগামীকাল থেকেই আমরা সরকারি প্রাইমারি স্কুলগুলো খুলতে পারি। স্কুল খোলার সব প্রস্তুতি আমাদের আছে।

 

এ মুহূর্তে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। মঙ্গলবার (২৪ আগস্ট) দুপুরে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলো খোলার জন্য আমরা প্রস্তুতি নিয়েছি। স্কুলগুলো পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করা হয়েছে।

 

আমাদের শিক্ষকরা স্কুলের যাচ্ছেন। আমরা অনলাইন ও অফলাইনে শিক্ষা কার্যক্রম চালাচ্ছি। সংসদ টিভিতে ক্লাস হচ্ছে। স্কুল বন্ধ থাকলেও আমাদের শিক্ষার্থীদের পাঠদান চলছে। তাদের ওয়ার্কশিট দেওয়া হচ্ছে।

স্কুল কবে খুলবে এ প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, স্কুল খোলার জন্য সরকারের উচ্চ পর্যায়ের নির্দেশানা লাগবে। এখন যে পরিস্থিতি হুট করে স্কুল খোলা যায় না।

 

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রিপরিষদ, স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা সবাই মিলে সিদ্ধান্ত নেবেন। স্কুল খোলার বিষয়ে আমাদের সব প্রস্তুতি আছে।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যদি আজকে নির্দেশনা দেন আমরা আগামীকাল থেকেই স্কুল খুলতে প্রস্তুত আছি। প্রতিমন্ত্রী বলেন, আল্লাহ যদি রহমত করেন আমরা খুব দ্রুত স্কুল খুলো দেবো। আপনারা জানেন ইতোমধ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী স্কুল খোলার ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা দিয়েছেন।