শক্তিশালী এই ফল কয়েকগুন বাড়াবে উত্তে’জনা..!

 

তরমুজ নাকি এ ব্যাপারে দারুণ কাজ ক’রে, শ’ক্তির দিক থেকে অক্ষ’ম বা দু’র্বল, তাদের সক্ষ’মতার জন্য ত%রমুজই প্রাকৃতিক প্রতিষেধক। অর্থাৎ তাদের এখন থেকে আর ভায়াগ্রার পেছনে অর্থ না ঢেলে তরমুজে আস্থা রাখলেই ‘। উচ্চমাত্রার প্রোটিনসমৃ”দ্ধ খাবার ছোলা। কাঁচা, সে%’দ্ধ বা তরকারি রান্না করেও খাওয়া যায়।%

কাঁচা ছোলা ভিজিয়ে, খোসা ছাড়িয়ে, কাঁচা আ’দার সঙ্গে খেলে শরীরে একই সঙ্গে আমিষ ও অ্যান্টিবায়োটি’ক যাব’ে। আমিষ মানুষকে শক্তিশালী ও স্বাস্থ্যবান বানায়। আর অ্যান্টিবায়োটিক যেকোনো অ’সুখের বিরু’দ্ধে যু’দ্ধ ‘করে। জেনে নিন ছোলার কিছু স্বাস্থ্যগু’ণের কথা:- ডাল হিসেবে: ছোলা ” একটি ডাল।

ছোলাতে দ্রবণীয় এবং অদ্রবণীয় উভ’য় ধরনের খাদ্য আঁশ আছে যা হৃদরোগে আ’ক্রা’ন্ত হওয়ার ঝুঁকি কমিয়ে দেয়। আঁশ, পটাসিয়াম, ভিটামিন ‘সি’ এবং ভিটামিন বি-৬ হৃদযন্ত্রের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে সাহায্য করে। ফলে হৃদরোগের ঝুঁকি কমে যায়। এর ডাল আঁশসমৃ”দ্ধ যা র’ক্তে কোলেস্টেরলের পরিমাণ কমাতে সাহায্য করে। এক সমীক্ষায় দেখা গেছে,” যারা প্রতিদিন ৪০৬৯ মিলিগ্রাম ছোলা খায় হৃদরোগ থেকে তা’দের মৃ’ত্যুর ঝুঁকি ৪৯% কমে যায়।

র’ক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে: আমেরিকান ‘ অ্যাসোসিয়েশন জার্নালে প্রকাশিত একটি গবেষণায় দেখানো হয় যে যে সকল অল্পবয়সী নারীরা বেশি পরিমাণে ফলিক এ’সিডযুক্ত খাবার খান তাদের হাইপারটেনশন এর প্রবণতা কমে যায়।” যেহেতু ছোলায় বেশ ভাল পরিমাণ ফলিক এ’সিড থাকে সেহেতু ছোলা খেলে র’ক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখা সহজ হয়। এছাড়া ছোলা বয়সসন্ধি পরবর্তীকালে মেয়েদের হার্ট ভাল রাখতেও’ সাহায্য করে। র’ক্ত চলাচল’

যে বেশি পরিমাণ ফলিক এ’সিড খাবারের সাথে গ্রহণের মাধ্যমে নারীরা কোলন ক্যান্সার এবং রেক্টাল ক্যান্সার এর ঝুঁকি থেকে নিজিদেরকে মুক্ত রাখতে পারেন। কোলেস্টেরল: ছোলা শরীরের অ’প্রয়োজনীয় কোলেস্টেরল কমিয়ে দেয়। ছোলার ফ্যা’ট বা তেলের বেশির ভাগ পলিআনস্যাচুরেটেড ফ্যা’ট, যা শরীরের জন্য ক্ষ’তিকর নয়। প্রোটিন, কার্বোহাইড্রেট ও ফ্যা’ট ছাড়া ছোলায় আরও আছে বিভিন্ন ভিটামিন ও খনিজ লবণ। কোষ্ঠকাঠিন্যে দূর করে: ছোলায় খাদ্য-আঁশও আছে বেশ। এ আঁশ কোষ্ঠকাঠিন্য সারায়।’

প্রতি ১০০ গ্রাম ছোলায় ক্যালসিয়াম আছে প্রায় ২০০ মিলিগ্রাম, লৌহ ১০ মিলিগ্রাম, ও ভিটামিন এ ১৯০ মাইক্রোগ্রাম। এছাড়া আছে ভিটামিন বি-১, বি-২, ফসফরাস ও ম্যাগনেসিয়াম। এর সবই শরীরের উপকারে আসে। রোগ প্রতিরোধ করেঃ কাঁচা ছোলা ভিজিয়ে কাঁচা আ’দার সঙ্গে খেলে শরীরে আমিষ ও অ্যান্টিবায়োটিকের চাহিদা পূরণ হয়। আমিষ মানুষকে শক্তিশালী ও স্বাস্থ্যবান বানায় এবং ‘”টিক যে কোনো অ’সুখের জন্য প্রতিরোধ গড়ে তোলে।

 

Leave a Reply

x