মেয়ের জন্য পাত্র দেখতে গিয়ে ঘটকের হাতে গণধর্ষণের শিকার মেয়ের মা

সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলায় মেয়ের জন্য পাত্র দেখতে গিয়ে ঘটক এবং ঘটকের সঙ্গীদের হাতে ধর্ষণের শিকার হয়েছে মেয়ের মা।

বুধবার (২৯ এপ্রিল) এই ধর্ষণের শিকার হয় ওই মেয়ের মা।
এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শ্যামনগর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সূত্রে জানা যায়, ধর্ষিত ওই মেয়ের মা ওই উপজেলার শ্রীফলকাটি গ্রামের বাসিন্দা।
বেশ কয়েক বছর আগে তার স্বামী মারা গেছে।

মেয়ের পাত্র দেখার জন্য কদমতলা এলাকায় ঘটকের কাছে যাওয়াই,
সেই সুযোগে ঘটক এবং তার সঙ্গীরা তাকে গণধর্ষণ করে।

শ্যামনগর থানার ওসি নাজমুল হুদা জানায়, নির্যাতিতের অভিযোগ মালা রেকর্ড করা হয়েছে।
আসামি ধরার জন্য পুলিশ মাঠে নেমেছে।

নির্যাতনের শিকার নারী জানায়, মেয়ের বিয়ের পাত্র দেখার জন্য ঘটকের কাছে গেলে ঘটক মহাসীন হোসেন তাকে কদমতলায় নিয়ে যায়।

এক পর্যায়ে ঘটক তাকে ভালো পাত্র দেখানোর অজুহাতে তাকে মোটরসাইকেলে করে কুলতলী গ্রামের যায় ঘটক।

একপর্যায়ে সন্ধ্যা সন্ধ্যা অবস্থায় ওই নারীকে গ্রামের এক চিংড়ী ঘেরের বাসায় নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে।

চিংড়ি ঘের কর্মচারী ওই নারীর চিৎকার শুনতে পেয়ে ওই নারীকে উদ্ধার করে।
এবং পরবর্তীতে সে ওই নারীকে গ্রাম পুলিশের কাছে নিয়ে যায়।

ওই নারী আরো বলেন, ওখান থেকে আমাকে উদ্ধার না করা হলে ওই ঘটকের আরো কিছু সঙ্গীর হাতে ধর্ষণ করার আশঙ্কা ছিল।

Articles You May Like

Leave a Reply

x