March 31, 2022 || 7:25 pm

মায়ের ভি’ক্ষার কয়েনে ছেলের স্বপ্নপূরণ..!!

স্বপ্নপূর’ণের জন্য যখন আপনি বদ্ধপরি’কর তখন আপ’নাকে ঠেকানোর কে আছে। ১ টাকা’র কয়েন জমিয়ে পছ’ন্দের স্কুটার কিনলেন নদী’য়ার বাসিন্দা রাকেশ পা’ন্ডে। কয়েন গুণতে রীতিমতো ঘা’ম ছুটেছে শোরুমের ক”র্মীদের।

মা’ত্র কয়েকদিন আগেই তামিলনাড়ুর এক যুব’কের এমন খবর সাম’নে এসেছিল। দুই লাখ ৬০ হা’জার রুপি দিয়ে স্ব’প্নের বাইক কিনেছিলেন। যার স’বই ছিল খুচরা পয়’সা। তবে সে নিজে জমিয়ে বাই’ক কিনলেও রাকে’শের বেলায় ঘটনা একটু অন্য’রকম।

রা’কেশ ৫১ হাজার ৫৯১ টাকা দিয়ে স্কুটার কি’নেছেন। যার সব অ’র্থই মায়ের ভিক্ষা করা। হ্যাঁ, ঠি’কই শুনেছে’ন। ভিক্ষা করে মায়ের তিল তিল করে স’ঞ্চয় করা কয়ে’নে, স্বপ্নপূরণ হলো রাকেশের। দুটি বাল’তি ও একটি ব্যা’গ ভর্তি কয়েন নিয়ে কৃষ্ণন’গরের একটি বাই’কের শোরুমে হাজির হন রা’কেশ পান্ডে।

উদ্দেশ্য স্কু’টার কেনা। কয়েন দিয়ে স্কুটার কে’নার কথা শুনে শোরু’মের ম্যানেজার থেকে কর্মী সকলে’ই তাজ্জব হয়ে যা’ন। প্রথমে হতচকিত হয়ে গেলেও, প’রে খুচরা পয়সা গো’নার কাজ শুরু করেন শোরু’মের কর্মীরা। প্রায় ৩ ঘণ্টা’ ধরে চলে কয়েন গোনার কাজ। দে’খা যায় সব মিলি’য়ে কয়েনের মূল্য দাঁড়িয়েছে ৫১ হা’জার ৫৯১ টা’কা।

স্কুটা’রের দাম ৭০ হাজার টাকা। যার বাকি টা’কা ঋণের মা’ধ্যমে শোধ করবেন ওই যুবক। কৃষ্ণন’গরের মোটর’বাইকের শোরুমের জেনারেল ম্যানে’জার শুভ শুক্লা বলে’ন, তারা প্রথমে ব্যাংকের ম্যানে’জারের সঙ্গে যোগা”যোগ করেছেন। তারপর সব স্টাফ মি’লে কয়েন গুনতে শু’রু করেন। ৩ ঘণ্টার চেষ্টায় গো’না শেষ হয় সব কয়েন। স্কুটি দেও’য়া হয় রাকেশকে।

রাকে’শ পান্ডে একটি দোকানে কাজ’ করেন। ছোট’বেলায় বাবা মারা যাওয়ার পর সং’সার চালাতে ভিক্ষা’বৃত্তির পথ বেছে নিতে হয় তার মাকে। সেখা’ন থেকেই এক টা’কার কয়েন জমাতে শুরু করে’ন তার মা ধুলু পান’রে। কারণ অনেকেই অচল দা’বি করে এক টাকার কয়েন নি’তেন না! আর তা দিয়েই এ’বার ছেলেকে কিনে দি’লেন স্কুটার!

Related Posts
x