মাদ্রাসার চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রী গণধর্ষণের শিকার

খুলনা মহানগরীর খানজাহান আলী থানার যোগীপোলে চতুর্থ শ্রেণীর এক মাদ্রাসার ছাত্রী (১৪) ধর্ষণের অভিযোগ এসেছে।

শনিবার (২ মে) দুপুরের দিকে নগরীর খানজাহান আলী থানায় মামলাটি দায়ের করা হয়।
ধর্ষিত হয় মেয়েটির গুরুতর আহত হয়ে পড়ে,
অসুস্থ ওই মেয়েটিকে খুলনার মেডিকেল হাসপাতালে ওআইসিতে রাখা হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) একই বাড়ির ভাড়াটিয়া নাহিদের ছেলে আমিনুল ইসলাম (১৪), মৃত শহীদের ছেলে আজিজুল (২১), আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে পারভেজ (২৫) তারা কৌশলে মেয়েটিকে পার্শ্ববর্তী মনসুর রহমানের পরিত্যক্ত বাড়িতে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে।

এ সময় মনসুর রহমানের ছেলে তাদের অসৎ কাজ দেখে ফেলে।

ধর্ষকরা ওই মেয়েটিকে মনসুর রহমানের ছেলে সানাউল্লাহর খাটের নিচে লুকিয়ে রাখে,
পরে সানাউল্লাহ তার খাটের নিচ থেকে মেয়েটিকে বের করতে গেলে দর্শকরা এসবের ভিডিও এবং ছবি মোবাইলে ধারণ করে।

ধর্ষকরা পরেরদিন মনসুর রহমান কে এসব ছবি এবং ভিডিও দিয়ে ৫০ হাজার টাকা দাবি করে।
পরে মেয়েটির কাছ থেকে বিষয়টি জানতে গেলে সে সব কথা খুলে বলে।

এ ব্যাপারে খানজাহান আলী থানার ওসি বলেন,
এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে থানায় নারী ও শিশু নির্যাতনের একটি মামলা করা হয়েছে।

Articles You May Like

Leave a Reply

x