ভাইরাল সেই ‘বৃদ্ধবর এবং নাবালেগ কনেকে’ গ্রেফতার করেছে পুলিশ

কুমিল্লার লালমাই উপজেলার এক রিকশাচালক শামসুল হক, সে অষ্টম শ্রেনীর এক মেয়েকে পালিয়ে নিয়ে গিয়ে বিয়ে করেছে।
মেয়েটির বয়স ছিল মাত্র ১৩ বছর।

রিকশাচালক শামসুল ওই মেয়েটিকে প্রতিদিন তার রিকশায় করে স্কুলে নিয়ে আসা যাওয়া করতে।

রিকশাচালক ওই শামসুলকে গত বৃহস্পতিবার উপজেলার পেরুল গ্রাম থেকে তাকে আটক করে পুলিশ।

অষ্টম শ্রেণীতে পড়ুয়া ওই মেয়ের নাম মরিয়ম,
(১০ মে) রিকশাচালক ওই মেয়েটিকে পালিয়ে নিয়ে যায়,
তারপর জন্ম সনদ পরিবর্তন করে তাকে বিয়ে করে।

বিষয়টি জানাজানি হলে এলাকার চেয়ারম্যান ওই রিক্সাচালক শামসুল কে তার ইউনিয়ন অফিসে ডেকে পাঠায়।

শামসুল হক সেখানে বিয়ের কাবিননামা এবং মেয়েটির জন্ম সনদ দেখায়।

শামসুল হক জানিয়েছেন, মেয়েটি যখন ক্লাস ফাইভে পড়ে সে সময় থেকে মেয়েটির সাথে প্রেমের বন্ধনে আবদ্ধ হয়।

মেয়েটিকে বারবার তার ফ্যামিলির কাছে যেতে বললে মেয়েটি তার পরিবারের কাছে যেতে রাজি হয়নি।

লালমাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মোঃ আইয়ূব বলেন, মেয়ের মা থানায় এসে অভিযোগ করায় পুলিশ অভিযুক্ত ওই শামসুল হককে গ্রেফতার করে।

Leave a Reply

x