ভাইরাল ভিডিওটি ‘পাপিয়ার’ নয় ‘বিউটির’

বহিস্কৃত মহিলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শামীমা নূর পাপিয়া এবং সাবেক এমপি সাবিনা আক্তার তুহিন সিসি ক্যামেরায় তাদের ভিডিও,
এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।

ফেসবুকে ভিডিওটা নিয়ে সাবেক এমপি সাবিনা আক্তার তুহিন মুখ খুলেছেন।

ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওতে যা দেখা যায়,
তার বিপরীত বর্ণনা দিয়েছেন সাবেক এমপি সাবিনা আক্তার তুহিন,
তার কথার সাথে ওই ভিডিওর কোন মিল খুঁজে পাওয়া যায়নি।

তিনি বলেন, ওই ভিডিওতে সাবিনা তুহিন ঠিকই আছে কিন্তু আর একজনকে দেখা যায় সে পাপিয়া নন।

সাবিনা বলেন তার সাথে ছিল তার বান্ধবী বিউটি,
কিন্তু ঐটা পাপিয়া নয়।

তুহিন বলেন, তার বান্ধবী বিদেশে গিয়ে ছিল,
সেখান থেকে তার স্বামীর ফোন বন্ধ পায় ,
বাধ্য হয়ে তার বান্ধবীর আবার দেশে ফিরে আসে।

আর বান্ধবী বাসায় এসে দেখে তার বাসার গেট আটকানো।

তারপর সে ডিসির কাছে যায়,
ডিসি বলে আপনি বাসায় যান আমি পুলিশ পাঠাচ্ছি।

তুহিন আরো বলেন,
তারপর বিউটি আমাকে ফোন দেয়,
আমি বিউটি রাস্তা থেকে আমার গাড়িতে উঠিয়ে নিয়ে তার বাসায় যাই,
এবং আমার বান্ধবীর ভাই অন্য গাড়িতে যায় ।

বান্ধবীর বাসায় যাওয়ার পর তার বাসার দরজায় ধাক্কা দিলে খুলে যায়,
এবং আমার বান্ধবী তার বাচ্চাদেরকে নিয়ে বাসায় প্রবেশ করে।

তুহিন আরো বলেন,
আমার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ রা তাদের স্বার্থ হাসিলের জন্য এসব করতেছে।

Articles You May Like

Leave a Reply

x