বোরকা পরিহিত অবস্থায় পিস্তলসহ গ্রেফতার করা হয় সাহেদকে

সাহেদ করিম ওরফে মোহাম্মদ সাহেদ একজন উচ্চমানের প্রতা’রক। তার সঙ্গে বিভিন্ন স্তরের মানুষের যোগাযোগ ছিল। আজ ( বুধবার, ১৫ জুলাই) ভোরে বোরকা পরে ছদ্মবেশে সে সীমান্ত পাড়ি দেও’য়ার চেষ্টা করে।

তখনই তাকে র্যাবের বিশেষ দল গ্রেফ’তার করে বলে জানায় র্যাবের গণমাধ্য’ম শাখার পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ।

তেজগাঁও পুরাতন বিমানবন্দরে র্যাবের গণমাধ্যম শাখার পরিচালক লেফটে’ন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ বুধবার সকালে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।
তিনি বলেন, ‘সাতক্ষীরায় সাহেদের গ্রামের বাড়ি।

দেশের বিভিন্ন স্থানে বিশেষ করে সীমা’ন্ত এলাকাগুলোয় র্যাবের গোয়েন্দা তৎপরতা ও নজরদারি ছিল। তারই ধারাবা’হিকতায় আজ ভোর সাড়ে ৫টায় সাতক্ষীরার দেবহাটা সীমান্ত থেকে গ্রেফতার করা হয়।’

গ্রেফতারের সময় সাহেদ করিম ওরফে মোহাম্ম’দ সাহেদ বোরকা পরে নৌকায় করে সীমান্ত পাড়ি দেওয়ার চেষ্টা করেছিল। খবর পেয়ে আমাদের গোয়েন্দা পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল সারওয়ার বিন কাশেম তার নেতৃত্বে পরিচালি’ত অভিযানে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

তিনি আরও জানান, সাহেদ অত্যন্ত উঁচুমানের একজন প্রতা’রক। যার ফলে তার সঙ্গে বিভিন্ন স্তরের মানুষের যোগাযোগ ছিল। সে সব ধর’নের প্রতারণার কৌশল অবলম্বন করে বিভিন্ন ট্রান্সপোর্ট পরিবর্তন করে সাতক্ষীরায় চলে যায়।

ভোররাতে সে সীমান্ত অতিক্রম করার চেষ্টা করে।
তার কাছ থেকে ম্যাগাজিন ভর্তি একটি বিদেশি পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে। গ্রেফতা’রের পর তাকে জরুরি ভিত্তিতে হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় নিয়ে আসা হচ্ছে।

তাকে র্যাব সদর দফতরে নিয়ে যাওয়া হবে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসা’বাদের পর ৩টায় র্যাবের মিডিয়া সেন্টারে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মে’লন করে তার বিষয়ে তথ্য জানানো হবে।

Articles You May Like

Leave a Reply

x