বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন কলেজছাত্রীর

সিরাজ’গঞ্জের রায়’গঞ্জে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অনশনে কলেজ’ছাত্রীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে। এতে ওই কলেজ’ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়লে পুলিশ উদ্ধার করে তাকে হাস’পাতালে ভর্তি করায়।

রবিবার (২০ জুন) সকালে ওই কলেজ’ছাত্রীকে সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতু’ন্নেছা মুজিব হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এর আগে শনিবার (১৯ জুন) সন্ধ্যা থেকে উপ’জেলার সোনা’খাড়া ইউনিয়নের নিমগাছি বাজারের পুল্লাহ গ্রামে প্রেমিক মেহেদী হাসান সোহানের বাড়ি’তে অনশনে ছিলেন কলেজ’ছাত্রী। তারা দুই’জনই নিমগাছি ডিগ্রি কলেজের শিক্ষা’র্থী।

কলেজ’ছাত্রী অভিযোগ করেন বলেন, তিন বছর ধরে তা’দের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক। প্রেমে’র ফাঁদে ফেলে প্রেমিক সোহান তার সঙ্গে শারী’রিক সম্পর্কও করেছে। সম্প্রতি বিষয়’টি পরিবার জেনে যায়। এরপর থেকে সোহান’কে বিয়ের জন্য চাপ দিলে সে বিয়ে’তে রাজি হয়নি। এখন সে সম্পর্ক অস্বী’কার করছে। তার পরিবারও এ সম্পর্ক মানতে নারাজ। এ পরি’স্থিতিতে বাধ্য হয়েই অনশন শুরু করি।

তিনি অভি’যোগ করেন, এ সময় সোহানে’র মা-বাবা বাড়ি থেকে বের করে দেয়ার চেষ্টা করেন। বের না হওয়ায় আমাকে মার’ধরও করা হয়। এতে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনা’স্থলে পৌঁছে রায়গঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করায়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে রবিবার সিরাজ’গঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতু’ন্নেছা মুজিব হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সোহানে’র বাবা শফিকুল ইসলাম ব’লেন, তার ছেলে’র সঙ্গে ওই মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক নেই। এ’লাকার কিছু কুচক্রী মহল আমাদের ওপর ষড়’যন্ত্র করে মান’সম্মান ক্ষুণ্ণ করতেই ওই মেয়ে’কে আমার বাড়িতে তুলে দিয়েছে।

রায়’গঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হোসাইন বলেন, প্রেম সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে ওই মেয়ে প্রেমিকে’র বাড়িতে অনশন করছিল। সেখানে প্রেমিকের পরিবারের সদস্য’রা তাকে নাকি মার’ধর করলে অসুস্থ হয়ে পড়ে।

Leave a Reply

x