বাংলাদেশে ‘করোনা ভাইরাস’ নিয়ে সুসংবাদ দিলেন ডাক্তার ও বিশেষজ্ঞরা

এই করোনাভাইরাস কে দমন করতে বিভিন্ন দেশ বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে,
আবার অনেক দেশ এর প্রতিষেধক বা ওষুধ আবিষ্কারের দাবি করছে।

তবে আনুষ্ঠানিকভাবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কোন ঔষধ বা ভ্যাকসিন কে এখনো ভালোভাবে অনুমোদন দেয়নি।

বর্তমানে বাংলাদেশে করোনা রোগীদের ওপর ঔষধ প্রয়োগ করে অল্প দিনেই সুস্থ করা হচ্ছে বলেন আশার আলো দেখিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

তারা বলেছেন এ ওষুধটি ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালেয় অনেক করোনা রোগী সুস্থের হার বেড়েছে ।

ইভারমেকটিন, ডক্সিসাইক্লিন যৌথভাবে ঔষধটি দিয়ে ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শুরু করলে প্রথমদিকেই এর সফলতা পাওয়া যায় ।

ঔষধটি রাজধানীর পুলিশ হাসপাতালে প্রায় দেড় হাজার লোকের ওপর প্রয়োগ করা হয়, ওই হাসপাতাল থেকে আগে করে ২০-২৫ জনকে করোনা থেকে সুস্থ করা যেত,
আর এখন ইভারমেকটিন, ডক্সিসাইক্লিন ঔষধটি যৌথভাবে ব্যবহারের ফলে গড়ে ১০০ জন কে করোনা থেকে মুক্ত করা যাচ্ছে বলে এমন টা দাবি করেন ডাক্তারেরা ।

এই ওষুধ টি কিভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে,
প্রথম দিকে করনা শনাক্ত হওয়ার পর সেই রোগীকে প্রথম ২ দিন দেওয়া হচ্ছে ইভারমেকটিন, এবং প্রতি ৭ দিনে দেওয়া হচ্ছে ডক্সিসাইক্লিন এতে মিলছে সুফল।

তাদের এই চিকিৎসা পদ্ধতি কে স্বাগত জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা, এবং এ বিষয়টি নিয়ে স্বাস্থ্য বিভাগও কাজ করছে বলে জানিয়েছেন তারা।

কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালের চিকিৎসক পুলিশ সুপার মোঃ এমদাদুল হক বলেন ,
আমরা লক্ষ্য করেছি ইভারমেকটিন, ডক্সিসাইক্লিন এই দুইটি গোসল রোগীর ওপর প্রয়োগের ফলে প্রতিদিন প্রায় করে ১০০ জন কে করোনা রোগীকে সুস্থ করা যাচ্ছে।

Articles You May Like

Leave a Reply

x