ফিলিস্তিনকে সমর্থন জানিয়ে সাথে থাকা ১০ মিডিয়া ব্যক্তিত্ব

সম্প্র’তি ঘটে যাওয়া ফিলিস্তিন-ইসরায়েল যুদ্ধে যুদ্ধ বিরতি’তে সম্মত হতে ইসরায়েল এক’রকম বাধ্য হয়। দীর্ঘ ১১ দিনের এ যুদ্ধের ব্যাপারে বিশ্বের অনেক সেলিব্রেটি ও বিশ্ব’নেতাই ফিলিস্তিনি’দের পক্ষে তাদের সমর্থন জানিয়েছেন। এবং এই সেলিব্রেটিদের অধিকাংশ ফিলিস্তিনি বংশো’দ্ভূতও নন।

জেনে নিন এমন ১০ জন সেলি’ব্রেটির নাম যাদের সমর্থন ছিল নির্যাতিত ফিলিস্তিনি’দের পক্ষে।

১০. বেলা হাদিদ এবং গিগি হাদিদ

ফিলিস্তিনি বংশো’দ্ভূত আমেরিকান দুই সহোদর মডেল জেলে’না নোরা হাদিদ এবং ইসা’বেলা খায়ের হাদিদ। বর্তমান সময়ে আমেরিকায় মডেলিং জগতের দুই পরিচিত ও জন’প্রিয় মুখ এই দুই সহোদর বোন। তারা নিজে’দের “গর্বিত ফিলিস্তিনি” হিসেবে উল্লেখ করেন তাদের ইনস্টা’গ্রাম পোস্টে। যুদ্ধ চলা’কালীন পুরো সময় জুড়েই ইসরায়েলি বর্বরতা নিয়ে বিভিন্ন ছবি, ভিডিও এবং লেখা পোস্ট করতে থাকেন তাদের ইনস্টা’গ্রাম ও টুইটার একাউন্টে। সর্বোপরি বেলা ও গিগি হাদিদের এই অকুণ্ঠ সমর্থন বিশ্ব’বাসীর নিকটও পৌছে গিয়েছে।

০৯. মার্ক রাফালো
‘দি এভেঞ্জারস’ সিরিজে’র ‘হাল্ক’ খ্যাত অভিনেতা মার্ক অ্যালান রাফালো। সম্প্রতি আলো’চনায় এসেছেন ইসরায়েলি’দের বিপক্ষে ফিলিস্তিনিদের সমর্থন জানিয়ে করা তার একটি টুইট বার্তার মাধ্যমে। তিনি তার সেই বার্তায় বিশ্ব’নেতাদের প্রতি আবেদন রেখেছেন ইসরায়েলের উপর চাপ সৃষ্টির জন্য। যতক্ষণ না ইসরায়েল ফিলিস্তিনি’দের নাগরিক অধিকার ও সম মর্যাদা ফিরিয়ে দিচ্ছে ততক্ষণ যেন ইসরায়েলি পণ্য বিশ্ব নেতারা অনু’মোদন না দেন। এই অভিনেতার মতে ইসরায়েলি আগ্রাসন নীতিই ফিলিস্তিনি’দের অধিকারকে ক্ষুণ্ণ করছে।

০৮. লরেন জরেগি
লরেন মিশেল জরেগি মর’গাদো একজন বিখ্যাত আমেরিকান সংগী’ত শিল্পী ও গীতিকার। মে মাসে ঘটে যাওয়া ফিলিস্তিন – ইসরায়েল যুদ্ধে তিনি’ও ফিলিস্তিনি’দের পক্ষেই বড় ধরণের সমর্থন জানিয়েছেন। জনপ্রিয় এই সংগীত শিল্পী তার টুইট বার্তায় ফিলিস্তিনি’দের প্রতি তার অগাধ সমর্থন জানিয়ে তাদের প্রতিরোধ সংগ্রামের সাথে সং’হতি প্রকাশ করেছেন।

০৭. উইলিয়াম পলটার
উইলিয়াম জ্যাক পলটার একজন ব্রিটিশ অভি’নেতা। তিনি তার টুইটে ব্রিটিশ সরকার’কে উদ্দেশ্য করে বলেন, “ অবশ্যই যুক্তরাজ্য সরকারের উচিত ফিলিস্তিনি’দের উপর ইসরায়েলি নৃশংসতার ও শেখ জাররাহ শহর থেকে তাদের’কে জোরপূর্বক উচ্ছেদের তীব্র নিন্দা করা”।

০৬. ভায়োলা ডেভিস
ফিলিস্তিনি’দের সমর্থন জানানো সেলি’ব্রেটিদের অন্যতম হলেন অস্কারজয়ী আমেরিকান অভিনেত্রী ভায়োলা ডেভিস। তিনি সামাজিক যোগা’যোগ মাধ্যমে ফিলিস্তিনের শেখ জাররাহ শহরের ঘটনার কথা উল্লেখ করে তার ফলোয়ার’দের আহবান করেন “আসুন আমরা শেখ জাররাহতে কী ঘটছে, সেটা নিয়ে কথা বলি”।

০৫. জন অলিভার
ব্রিটিশ আমেরিকান কমেডিয়ান জন উইলিয়াম অলিভার তার HBO চ্যানেলের এক’টি সিরিজ শোতে ইসরায়েল-ফিলিস্তিন ইস্যু নিয়ে কথা বলেন। চল’মান এই ঘটনার একটি বিতর্কিত বিষয় তিনি তুলে ধরেন। তার মতে ইসরায়েল-ফিলিস্তিন সংঘর্ষে দেখা যাচ্ছে এক’পক্ষ একচেটিয়া মার খাচ্ছে ও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে এবং ইসরায়েল এখানে নিশ্চিত’ভাবে যুদ্ধাপরাধে জড়িত।

০৪. ইথান ক্লেইন
ইসরায়েলি বংশো’দ্ভূত হওয়া সত্ত্বেও ইউটিউব সেলিব্রেটি ইথান এড’ওয়ার্ড ক্লেইন ও তার স্ত্রী হিলা ক্লেইন জোরালো’ভাবে ফিলিয়াতিনিদের উপর ইসরায়েলি আক্রমনের বিরোধিতা করেছেন। ইথান তার পোস্টে আক্ষেপ করে বলেন, “ইসরায়েলি সরকার আমাকে অসুস্থ বানিয়ে দিচ্ছে। ফিলিস্তিনি বসত-ভিটা ও ভবনে ইসরায়েলি’দের ধ্বংসযজ্ঞ’কে তিনি অমানবিক হিসেবে উল্লেখ করেন। এরপর ইথান বলেন গাজা’বাসীর ভয়-ভীতিহীন একটি স্বাভাবিক জীবনই প্রাপ্য।

০৩. ফিলিপ ডি ফ্রানচো
জনপ্রিয় ইউ’টিউব ব্যক্তিত্ব ও সংবাদ উপস্থাপক হলেন আমেরিকান ফিলিপ জেমস ডি ফ্রানচো। তিনি ফিলিস্তিন ইস্যু নিয়ে একটি ভিডিও তৈরি করেন। যেটির মাধ্যমে তিনি বেশ সমা’দৃত হয়েছেন, কুড়িয়েছেন সবার সমর্থন। ভিডিও’টিতে তিনি সূক্ষ্ম’ভাবে দেখান যে ইসরায়েল-ফিলিস্তিন ইস্যুতে একপক্ষের বেসামরিক জনগণ ও শিশুদের গুরুতর’ভাবে হত্যা করা হচ্ছে। সুনির্দিষ্ট’ভাবে একপক্ষের এমন ভবগুলোকে টার্গেট করে ধ্বংস করা হচ্ছে, যেখানে সংবাদ সংস্থা রয়েছে। এবং এই ধ্বংসের কী কারণ থাকতে পারে, তার যৌক্তিক কোন প্রমাণও অপর পক্ষ দেখাতে পারেনি।

০২.কিংবদন্তি সংগীতজ্ঞ রজার ওয়াটার্স
জর্জ রজার ওয়াটার্স একজন ব্রিটিশ গীতি’কার ও সর্বাধিক পরিচিত রক ব্র‍্যান্ড পিংক ফ্লয়েডের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ছিলেন। সত্তরোর্ধ্ রজার ওয়াটার্সও কথা বলেছেন ইসরায়েলি আগ্রাসী নীতির বিরু’দ্ধে। তিনি ইসরায়েলকে জাতি’গত বিদ্বেষপূর্ণ রাষ্ট্র হিসেবে অভিহিত করেন। যেখানে ফিলিস্তিনি জন’গোষ্ঠী জোরপূর্বক ইসরায়েলি দন্ডাদেশের অধীনে নির্যাতিত হচ্ছে। রজার আমেরিকার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ইসরায়েল’কে সমর্থনের তীব্র সমালোচনা করে তার বিরুদ্ধেও আওয়াজ তুলেছেন।

০১. ট্রেভর নোয়া
ট্রেভর নোয়া অধিক পরি’চিত তার ‘দ্য ডেইলি শো’ এর জন্য। এখানে তিনি আন্তর্জাতিক ও আমেরিকার বিভিন্ন রাজ’নৈতিক ইস্যুকে ব্যঙ্গাত্মক’ভাবে বিনোদন আকারে উপস্থাপন করে থাকেন। সম্প্রতি ট্রেভর তার টিভি শোতে ইসরায়েল-ফিলিস্তিন ইস্যুকে সামনে নিয়ে এসেছেন। তিনি ইসরায়েলি সেনা’বাহিনীর একচ্ছত্র ক্ষমতার ব্যবহার নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। এই ক্ষমতার অপ’ব্যবহার করে যে ধ্বংস’যজ্ঞ চালানো হয়েছে, তাতে ইসরায়েলি সেনা’বাহিনীর দায় কতটুকু এটা নিয়েও আঙ্গুল তুলেছেন তিনি।

Articles You May Like

Leave a Reply

x