প্রতি শুক্রবার এই শিশুটির শরীরে পবিত্র কোরআনের আয়াত লেখা ভেসে ওঠে

উত্তর রাশিয়ার দাগিস্তা’নে এক মুসলিম পরি’বারে জন্ম নেয় শিশু আলিয়া ইয়াকুব।

প্রতি শুক্রবার তার শরীরে’র বিভিন্ন স্থানে ত্বকের নীচে জমাট রক্তে’র মতো হরফে পবিত্র কোরআন বা হাদিসের একেক’টা বানী লেখা ভেসে ওঠে।

এর স্থিরচিত্র বিভিন্ন মানুষ তুলে রাখেন। বাড়িতে একটি অ্যাল’বামের প্রদর্শনী খোলা হয়েছে। মধ্যপ্রাচ্যের একটি টেলিভিশন শিশুটির মায়ের সাক্ষাৎ’কার নেয়।

শিশুটির মা টেলিভিশন’টিতে বলেন, ‘যে সময় তার দেহে আয়াত বা হাদিস ভেসে ওঠে এর আগে তার অনেক জ্বর আ’সে। সে সময় সে প্রচণ্ড কান্না করতে থাকে।

এরপর লেখা’গুলো ভেসে উঠলে জ্বর কমে এবং কান্না থেমে যায়। দুধ পান করার সময়ও সে খুব শান্ত থাকে। ভিডিওটিতে শিশুটি’র নানা অঙ্গে আয়াত ও হাদিসের কিছু চিত্র দেখা যাবে।

কিছু স্থিরচিত্র প্রদর্শনে’র জন্য রাখা হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, ‘এটি আল্লাহর কুদরত ও মহানবী (স:)-এর মুজিযা। যে কোনও কারণে আল্লাহ তা তার বান্দা অথ’বা প্রকৃতির মধ্যে প্রকাশ করে থাকেন।

যাতে মানুষ শিক্ষা গ্রহন ও ঈমান মজবুত করতে পারে।’ অনেকে বলছেন, ‘এটি ইমাম মাহাদির আগমনের অন্যতম নমুনা। কি’য়ামতের নিদর্শ’নও হতে পারে এটি।

শিশুটির পেটে ‘আল্লাহ’ গলায়, পায়ে, ঘাড়ে, পিঠে ও কানে আল্লাহ’র নাম। পা থেকে উ’রু হয়ে কোমর পর্যন্ত লম্বা লেখা’টি হচ্ছে একটি হাদিসে’র বানী। যার অর্থ, আমি যা জানি তা যদি তোমরা জানতে তাহলে হাসতে কম!

Articles You May Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *