পাপিয়ার ফোনের ভিডিও নিয়ে যা বললেন, গোয়েন্দা সংস্থা

পাপিয়াকে অস্ত্র, মাদক এবং দেহ ব্যবসার জন্য তাকে গ্রেফতার করা হয়।

পাপিয়া আস্তানায় অনেক এমপি মন্ত্রী প্রভাবশালী ব্যবসায়ীরা নিয়মিত যাওয়া আসা করতো।

পাপিয়া তার দেহ ব্যবসার জন্য গ্রাম থেকে মেয়েদের কে চাকরি দেওয়ার লোভ দেখিয়ে তার পতিতালয় রাখতেন।

এবং দেশের বাইরে থেকেও পাপিয়া যৌনকর্মী আনতেন বাংলাদেশ।

পাপিয়া আস্তানায় যারা যৌন কর্মের জন্য আসতো গোপনে তাদের অপকর্ম ভিডিও করে রাখতো পাপিয়া।

পরবর্তীতে ওই ভিডিওগুলো দেখে তাদেরকে ব্ল্যাকমেইল করে লক্ষ লক্ষ টাকা নিত।

গোয়েন্দা সংস্থা থেকে জানা যায়,
তার ফোনের চ্যাট লিস্টে অনেক ভিআইপি লোকের সাথে কথাবার্তা হয়েছে।

পাপিয়ার ফোনের ভিডিওগুলো ডিলিট করা হয়েছে কিনা ,
তা নিশ্চিত হওয়ার জন্য তার ফোনের ডিভাইসগুলো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হচ্ছে।

Articles You May Like

Leave a Reply

x