পাপিয়ার প্রধান ব্যবসা ছিল, কম বয়সী মেয়েদের কে নিয়ে দেহ ব্যবসা..

মহিলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শামীমা নূর পাপিয়া ।
গত শনিবার র‌্যাব তাকে গ্রেফতার করে ।
তার বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ ছিল…
সে বিদেশে অর্থ পাচার করত, জালনোটের কারবার করত,
মধ্য ব্যবসা করত,
এবং গ্রাম থেকে স্কুল পড়ুয়া মেয়েদেরকে নিয়ে এসে পতিতালয় পাঠায়ে দিত ।

তার প্রধান ব্যবসা ছিল দেহ ব্যবসা ।
পাপিয়া গ্রাম থেকে কম বয়সী মেয়েদের কে চাকরির লোভ দেখিয়ে,
সেই সব মেয়েদের কে নিয়ে দেহ ব্যবসা করত পাপিয়া ।

পাপিয়ার কাস্টমাররা ছিল ভিআইপি কাস্টমার,
অনেক প্রভাবশালী কাস্টমার,
সে কাস্টমারদের কাছে তার হাতে থাকা ওইসব নিরহ মেয়েদের পিক পাঠায়ে দিত,
যদি পছন্দ না হতো তারপরে উলঙ্গ ছবি পাঠায় নি তো সেসব কাস্টমারদের কাছে ।

পাপিয়া ওইসব মেয়েদেরকে ৮ থেকে ৩০ হাজার টাকার মতো বেতন দিত ।

পাপিয়া হোটেলে বা ক্লায়েন্টের বাসাবাড়িতে মেয়েদেরকে পাঠিয়ে দিত ।

ওইসব মেয়েদের কে পাঠানোর কাজে,
পাপিয়ার স্বামী সুমন এবং সাব্বির খন্দকার মেয়েদেরকে নিয়ে যাওয়া আসা করত ।

আবার যে সকল ক্লায়েন্ট পাপিয়ার আস্তানায় এসে এদের সাথে মেলামেশা করতো,
গোপন ভিডিওতে রেকর্ড করে রাখত পাপিয়া।

কিছুদিন পর ওই ক্লায়েন্টের এসব ভিডিও তাদেরকে দেখিয়ে ব্ল্যাকমেইল করে হাতিয়ে নিতো লক্ষ লক্ষ টাকা ।

Articles You May Like

Leave a Reply

x