ধর্ষণে ৭ম শ্রেণীর ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা, ধর্ষকের বয়স ৬০ বছর

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী (১২) ধর্ষণের সাত মাস পর অন্তঃসত্ত্বা।

সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার অভিযোগে রুহুল আমিন (৬০) নামক এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ধর্ষণের শিকার মেয়েটি ৭ মাস অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার পর তার পরিবার বুঝতে পারে।

তারপর ভুক্তভোগির বাবা রবিবার (১২ এপ্রিল) মঠবাড়িয়া থানায় মামলা করে।
মামলার পর পুলিশ অভিযুক্ত আসামিকে গ্রেফতার করে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ওই সপ্তম শ্রেণীর মেয়েটি সাত মাস আগে পান কিনতে যাওয়ার পথে রুহুল আমিন লোভ দেখিয়ে তাকে বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে।

ধর্ষণের পর রুহুল আমিন ওই ছাত্রীকে হুমকি দিয়ে বলে, যদি এই ঘটনা কাউকে বললে তাহলে তোকে খুন করে ফেলবো।

পরে মেয়েটির অন্তঃসত্ত্বা পরিবারের চোখে পড়লে তার বাবা-মা তার কাছ থেকে জানতে চাই এই ঘটনা।
এবং মেয়েটি তার পরিবারের কাছে এসব কথা বলেন।

রবিবার (১২ এপ্রিল) দুপুরে ভুক্তভোগীর পরিবার থানায় এসে মামলা করে।

মঠবাড়িয়া থানার ওসি আসাদুজ্জামান মিলু এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

এবং অভিযুক্ত আসামি কে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

Articles You May Like

Leave a Reply

x