ধর্ষণের শিকার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে হত্যা করে চিঠি লিখে স্বামীর আত্মহত্যা

অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী’কে গণধর্ষণ করা হয়েছে জেনে তাকে হত্যা করে আত্মহত্যা করেন স্বামী। নির্মম এই ঘটনা ঘটেছে ভারতের হরি’য়ানার হিসারে। মঙ্গলবার গণ’ধর্ষণের শিকার হন সেই নারী।

আত্ম’হত্যার আগে একটি সুইসাইড নোট লিখেছেন ওই ব্যক্তি। সেই নোটে মৃত্যুর কারণ হিসাবে ওই দুই ধর্ষণ’কারীর উল্লেখ করেছেন তিনি। তিনি লেখেন, গত ১৫ আগস্ট একটি কাজে গ্রামের বাইরে গিয়ে’ছিলেন, ফিরে এসে দেখেন তার স্ত্রী খুব কান্না’কাটি করছেন। তখনই স্ত্রীর কাছ থেকে গণ’ধর্ষণের বিষয়টি জানতে পারেন তিনি।

সুই’সাইড নোটে ওই ব্যক্তি লিখেন, ‘পুলিশে অভিযোগ করতে চেয়ে’ছিলাম। কিন্তু স্ত্রী জানান, কোনও লাভ হবে না। অপ’রাধীদের খুন করে দেওয়ার জন্যও স্ত্রী আমায় বলেন। কিন্তু আমি তা’তে রাজি হয়নি। কারণ, আমি অপরাধী হয়ে যাব। এরপরই উপা’য়ান্তর না দেখে স্ত্রীকে মেরে আত্ম’হত্যা করার পরিকল্পনা করি। এ ছাড়া আমাদের সামনে আর কোনও উপা’য় ছিল না।’

সেই নোটে দুই ধর্ষণ’কারীর নাম রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ওই মহিলার ভাই’য়ের অভিযোগের ভিত্তিতে বারওয়ালা থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। নিহত নারী’র ভাই জানিয়েছেন, বোনের মৃত্যুর খবর পেয়ে তিনি এসেছি’লেন। কিন্তু এসে দেখেন তার ভগ্নি’পতিও আত্মহত্যা করেছেন। নারীর গলায় ধারালো অস্ত্রের কোপ রয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, ধারালো অস্ত্র দিয়ে স্ত্রীকে খুন করে নিজে আত্ম’ঘাতী হয়েছেন ওই ব্যক্তি।

Leave a Reply

x