ডুবন্ত লঞ্চের উদ্ধারকারী জাহাজটি ধাক্কায় বুড়িগঙ্গার সেতুতে ফাটল

সোমবার বুড়িগঙ্গার সদরঘাটে একটি লঞ্চ ডুবির দুর্ঘটনা ঘটে।
ওই দুর্ঘটনায় ফায়ার সার্ভিস এবং নৌবাহিনী ও স্থানীয়রা উদ্ধারকাজ চালায়।

লঞ্চটি উদ্ধার করার জন্য একপর্যায়ে বড় একটি জাহাজ আনার সিদ্ধান্ত করা হয়।
উদ্ধারকারী বড় জাহাজটি আসার পথে পোস্তগোলার বুড়িগঙ্গা নদীর উপর নির্মিত সেতুর সঙ্গে ধাক্কা লেগে যায়।

ধাক্কা লাগার কারণে ওই সেতুটিতে পটল ধরে যায়।
যার ফলে মানুষের যাতায়াত ওই সেতুর উপর দিয়ে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

সড়ক ও জনপথ বিভাগের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী (ঢাকা অঞ্চল) সবুজ উদ্দিন খান জানান, ‘বড় জাহাজের ধাক্কায় সেতুটিতে ফাটল দেখা যায়,
এবং এই ফাটলের কারণে সকল প্রকার যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

তিনি আরো বলেছেন, মঙ্গলবার (৩০ জুন) আমাদের বিশেষজ্ঞরা সেতুটি পরিদর্শন করার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।’

এদিকে, পরবর্তীতে ডুবে যাওয়া লঞ্চটি উদ্ধার করার জন্য বড় জাহাজটি নিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়নি।
পরে ডুবে যাওয়া লঞ্চটি উদ্ধার করার জন্য দেশিও পদ্ধতি ব্যবহার করে উদ্ধার করা হয়েছে।

দেশীয় পদ্ধতি ব্যবহার করে লঞ্চটি উত্তোলনের সময় ওই ডুবে থাকা লঞ্চ থেকে ১৩ ঘণ্টা পর একজন জীবিত ব্যক্তিকে উদ্ধার করা হয়েছে।
পরবর্তীতে জীবিত উদ্ধার কৃত লোকটিকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

বড় লঞ্চ (ময়র-২) এর ধাক্কায় যাত্রীবাহী ছোট একটি লঞ্চ (মর্নিং বার্ড) লঞ্চটি ডুবে যায়।
ডুবে যাওয়া লঞ্চটি তে থাকা অনেক যাত্রীর মৃত্যু হয়,
মৃত্যুর পাশাপাশি অনেক যাত্রী প্রাণে বেঁচে যায়।

Articles You May Like

Leave a Reply

x