টানা দুই সপ্তাহের জন্য সকল দোকানপাট, মার্কেট বন্ধের ঘোষণা

স্বাস্থ্য বিধি না মেনে মানুষের খোলামেলা চলাফেরায় বাংলাদেশের বেড়েই চলেছে ঘটনার সংক্রমণ।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে বাংলাদেশ সরকার কিছু কিছু জেলায় ঘোষণা করেছে।

খুলনায় স্বাস্থ্য বিধি না মেনে মানুষের অবাধ চলাফেরায় ঊর্ধ্বমুখী হারে বেড়ে চলেছে সংক্রমণ।
ওই জেলার দোকানপাট, হাট বাজার, এবং বহিরাগতদের অবাধ যাওয়া-আসা নিয়ন্ত্রণের বাইরে।

এর ফলে প্রতিনিয়ত করোনার সংক্রমণ বেড়ে চলেছে।
করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে দোকানপাট, হাট-বাজার, বহিরাগতদের অবাধ যাওয়া-আসা বন্ধ করে দিয়েছে জেলা প্রশাসন।

জেলা প্রশাসন থেকে আদেশ জারি করা হয়েছে দুই সপ্তাহ খুলনা জেলার দোকানপাট, রাস্তাঘাট, বহিরাগতদের অবাধ যাওয়া-আসা বন্ধ থাকার ঘোষণা দিয়েছে জেলা প্রশাসন।

এদিকে গণবিজ্ঞপ্তি জারির পরে মাঠে নেমেছে পুলিশ,
বাইরে যারা গণস্বাস্থ্য বিধি না মেনে,
মুখে মাস্ক না পরে অবাধ ঘোরাফেরা করছে তাদেরকে জরিমানা করতেছে ভ্রাম্যমান আদালত।
ছোট ইজি বাইক গুলোতে দুইজনের বেশি যাত্রী বহনে বাধা দেয়া হচ্ছে বলে জানা যায়।

কাঁচামালের বাজার গুলো সকাল ৭ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত খোলা রাখার নির্দেশ দিয়েছে জেলা প্রশাসন।
সেইসাথে জেলা প্রশাসন থেকে আরো দেওয়া হয়েছে সন্ধ্যা ছয়টার পর থেকে সকাল সাতটা পর্যন্ত কেউ বাইরে প্রয়োজন ছাড়া ঘোরাফেরা করতে পারবে না।

কেউ যদি জরুরি প্রয়োজনে ঘর থেকে বের হয় তাহলে সে যেন মুখে মাস্ক এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে তার জরুরি কাজ শেষ করে আবার ঘরে ফিরে।

জেলা প্রশাসন বলেছেন কেউ যদি মুখে মাস্ক এবং সামাজিক দুরত্ব বজায় চলাফেরা করে তাহলে তাদেরকে জেল-জরিমানা বা কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

Articles You May Like

Leave a Reply

x