জিদানের সেই মাদ্রিদ ফিরে পাওয়া কঠিন!

জিনেদিন জিদানের অধীনে দুর্দান্ত ফুটবল খেলেছিল রিয়াল মাদ্রিদ।রোনালদো-বেনজেমা,ক্রুস-মডরিচ,মার্সেলো-রামোস সবাই ক্যারিয়ার এর সেরা সময় পার করেছিল।তারা সবাই রিয়ালের নিজ নিজ পজিশনে সেরা ফুটবলার ছিল।হ্যাট্রিক চ্যাম্পিয়নস লিগের শিরোপা ঘরে তুলে রেকর্ডে নাম তোলেন তৎকালীন রিয়াল কোচ জিদান।এরপর রোনালদো এবং জিদান ক্লাব ছাড়তেই ধূসর দলে পরিণত হয় লস ব্লাঙ্কোসরা।যদিও জিদান আবার রিয়ালকে স্বরূপে ফেরাতে মাদ্রিদে ফিরেছেন।তবে বিশ্বের অন্যতম সেরা এবং মাদ্রিদ মিডফিল্ড এর প্রাণ টনি ক্রুস মনে করেন,জিদানের আগের সেই রিয়াল মাদ্রিদকে ফিরে পাওয়া কঠিন।
রিয়াল মাদ্রিদ এখন যে ফুটবল খেলছে,তার চেয়ে আরও অনেক বেশী ভাল এবং আকর্ষণীয় ফুটবল খেললেই পুরনো সেই সময় ফিরে পাওয়া সম্ভব বলে মনে করেন জার্মানির বিশ্বকাপ জয়ের অন্যতম কারিগর ক্রুস।রিয়াল মাদ্রিদে পাঁচ মৌসুম কাটানো এই খেলোয়াড়ের মতে,আমরা আরও ভালো ফুটবল খেলতে চাই,আরও ধারাবাহিক হতে চাই।এটাই সবচেয়ে বেশি দরকারি।কারণ এটা করতে পারলেই বাকিগুলো আমাদের পক্ষে চলে আসবে।আরও ভালো খেলতে পারলে আমরা শিরোপার জন্য লড়তে পারবো।
জিদান এসে আবার রিয়ালের সেই সময় ফেরাতে পারবেন কি-না এমন প্রশ্নে ক্রুস বলেন,’ওই দলের সঙ্গে এই দলের তুলনা খুব একটা আশা দেবে না।জিদান দলকে যেখানে রেখে গিয়েছিলেন সেখানে আবার ফিরিয়ে আনা সহজ কাজ নয়।ওইখানে দলকে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়া সত্যিই কঠিন কাজ।তিনি ২০১৮ সালের মে মাসে যে দলটা রেখে গেলেন।সেই দলটা ২০১৯ সালের মার্চে ভিন্ন দল হয়ে গেছে।তবে রিয়াল মাদ্রিদে আসা নতুন স্ট্রাইকার লুকা জোভিক দলকে আবার শক্ত অবস্থানে নিয়ে যাবে বলে আশা ক্রুসের।তার দূর্ভাগ্য যে ইনজুরির কারণে দলের বাইরে ছিলেন তিনি।
রিয়াল মাদ্রিদ চলতি মৌসুমের জন্য বেশ কিছু নতুন ফুটবলার কিনেছে।ফরোয়ার্ড এডেন হ্যাজার্ড,ডিফেন্ডার এদের মিলিতাও,স্ট্রাইকার লুকা ইয়োভিচ রিয়ালে এসেছেন।তরুণ ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রদ্রিগো রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দিয়েছেন।তরুণ ভিনিসিয়াসরা আছেন আগে থেকেই।জিনেদিন জিদান তাই আবার রিয়াল মাদ্রিদকে গুছিয়ে আনার পথ রচনা শুরু করে দিয়েছেন।এখন মাঠের ফুটবল দেখার পালা।আগামী ১৭ আগস্ট লা লিগার নতুন মৌসুম শুরু হবে।বার্সেলোনার পরে ওই দিন ম্যাচ আছে রিয়াল মাদ্রিদের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *