ছাত্রলীগ ধানকাটায় অংশ না নিলে দেশে খাদ্য সংকট দেখা দিত: ত্রাণ মন্ত্রী..!

প্রধানমন্ত্রী ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নির্দেশনায় দে’শের বিভিন্ন’ স্থানে ধান কেটে দিয়েছে ছাত্রলীগ। শ্রমিক সংকট ও চড়া মজুরির কারণে দরিদ্র কৃষকরা জমির পাকা ধান কেটে ঘরে তুলতে পার’ছি’লেন না। এমন অবস্থায় রোদ-বৃষ্টিতে তাদের পাকা ধান জমিতেই নষ্ট হচ্ছিল। খবর পেয়ে ছাত্রলীগের কর্মীরা কৃষকের জমির ”ধান কেটে মাথায় করে বাড়ি

পৌঁছে দেয়।দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রী ডা. এনামুর র’হমান বলেছেন, করোনাকালীন সময়ে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ‘যদি ধানকাটা কর্মসূচিতে অংশ না নিত, তাহলে দেশে খাদ্য সং’কট দেখা দিত। দেশকে তারা বাঁচিয়েছে। বিশাল একটি কর্মকা’ণ্ড তারা পালন করেছে। এজন্য আজকে বাংলাদেশের কৃষকরাও ‘আনন্দিত।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বো’পার্জিত স্বাধীনতা চত্বরে ছাত্রলীগের ৭৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপ’লক্ষে হতদরিদ্রদের মাঝে ছাত্রলীগের শীতবস্ত্র বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।ডা. এনামুর রহ’মান বলেন, বিভিন্ন দুর্যোগ মোকাবিলায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সা’হায্য-সহায়তা সর্বত্র প্রতীয়মান। এই সংগঠন প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকে দেশের অসহায় দরিদ্রদের জন্য সবসময় সাহায্য করে আসছে ‘এমনকি যেকোনো আন্দোলন সংগ্রামে তাদের ভূমিকা অনন্য। নিজের জীবনকে বাজি রেখে সব সময় তারা কাজ করেছে।’

Leave a Reply

x