চাঁদপুরে একসঙ্গে পাঁচ সন্তান প্র’স’ব, একে একে সবার মৃ’ত্যু!

চাঁদপুরের কচুয়ায় এক’সঙ্গে পাঁচ সন্তান প্র’সব করেছেন এক মা। তবে প্রসবের পরপরই হাসপাতালেই মারা যায় তিন শি’শু আর পরে বাসায় নিয়ে যাওয়ার পর বাকি দুটিরও মৃ’ত্যু হয়।

পাঁচ সন্তা’ন জ’ন্মদানের এমন ঘটনা ঘটেছে কচুয়া টাওয়ার হাসপাতাল নামে বেসরকারি একটি ক্লি’নিকে। খোঁ’জ নিয়ে জানা গেছে, শনিবার রাত সাড়ে ৮টায় প্রসবব্যথা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন মারুফা বেগম (২৫)।

শনিবার (১৫ আগস্ট) রাতে এই ঘটনা ঘটে। প্রস’বের পরপরই তিন শি’শু মা’রা যায়। বাকি দুই শি’শু জীবিত থাকলেও রোববার (১৬ আগস্ট) সকালে একে একে তারাও মৃ’ত্যু’র কোলে ঢোলে পরে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শনিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে প্রস’ব ব্য’থা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন মারুফা বেগম (২৫) এক প্রসূতি।

প্রসূতির বর্ণনা শুনে হাসপাতালের চি’কিৎ’সক তাকে আল্ট্রাসনোগ্রাম করেন। এসময় প্রসব ব্য’থা তী’ব্র হতে শুরু করলে মারুফা বেগমকে দ্রুত অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাওয়া হয়।

সেখানে স্বাভাবিকভাবে পরপর পাঁচ’টি স
ন্তান প্র’সব করেন মারুফা বেগম। এরমধ্যে চারটি ছেলে এবং একটি মেয়ে সন্তা’নও রয়েছে।

তবে অপরিণত হওয়ায় জ’ন্মের অল্পে সময় পরেই তিন শিশু মারা যায়। রাতেই জীবিত অন্য দুই শিশু নিয়ে হাসপাতাল ত্যা’গ করেন ওই প্রসূতি মা।

তবে রোববার সকালে জীবিত থাকা দুই শিশু’ও মৃ’ত্যু’র কোলে ঢোলে পরে। কচুয়া টাওয়ার হাসপাতালের চিকিৎসক সিনথিয়া সাহা জানান, মূলত অপরিণত হয়ে জ’ন্ম হওয়ায় পাঁচ শি’শুই মা’রা যায়।

জানা গেছে, কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার বরকড়ই গ্রামের কৃষক মো. ইউনুসের স্ত্রী মারু’ফা বেগম। তবে প্রসব ব্যথার আগে মারুফা তার বাবার বাড়ি চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার আন্দিরপাড়ে অবস্থান করছিলেন।

Leave a Reply

x