ঘুমন্ত স্ত্রীর পাশেই ১২ বছরের মেয়েকে ধর্ষণ!

দিন দিন ধর্ষণ বেড়ে’ই চলেছে। ধর্ষণ এমন পর্যায়ে পৌঁছে গেছে যে বাবা’র কাছেও রক্ষা পাচ্ছে না মেয়ে। শুক্রবার রাতে এমনই একটি ঘটনা ঘটেছে ভারতের নয়’ডার ফেজ-থ্রি থানা এলাকায়।

ভারতীয় গণমাধ্যম সূত্র জানায়, প্রচণ্ড ক্লান্তিতে অঘোরে ঘুমোচ্ছিলেন কিশোরীর মা। এই সুযোগে ঘরে ১২ বছরের মেয়ে’কে ধর্ষণ করেছে বাবা।

পরদিন মেয়ের রক্ত’মাখা জামা দেখে সন্দেহ হয় মায়ের। পরে মেয়ে’কে প্রশ্ন করে জানতে পারে আসল ঘটনা।

নির্যা’তিতা ওই মেয়ে মাকে জানায়, কাউ’কে এই সব কথা বললে বাবা তাকে আর তার দুই ভাই’কে খুন করে দেবে বলেছে।

এ ঘটনার পর মেয়ের ডাক্তারি পরীক্ষা করা হয়। পরে থানায় মায়ের অভি’যোগ ও রিপোর্টের ভিত্তিতে পুলিশ অভিযুক্ত’কে গ্রেপ্তার করে।

পুলিশ ও ধর্ষিতার মা জানায়, ধর্ষি’তার বাবা-মা একটি পোশাক কারখানায় কাজ করেন। সপ্তাহে চার দিন কারখানায় কাজ করতে যেত অভি’যুক্ত ওই ‌বাবা। রোজ রাতে মদ খেয়ে বাড়ি ফেরে। শুক্র’বার রাতে শোওয়ার জন্য মেয়ে আর দুই ছেলেকে নিয়ে ঘরের মেঝেতে শুয়ে পড়ে মা। পরে মাটি থেকে মেয়ে আর দুই ছেলেকে বিছানায় তুলে নিয়ে যায় অভিযুক্ত বাবা। ওখা’নেই মেয়ের ওপর অত্যাচার করা হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, ৩৫ বছর বয়সী অভি’যুক্তের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করা হয়েছে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৬ নম্বর ধারায়।

ধর্ষিতার মা কেন একই ঘরে শুয়ে তাঁর মেয়ের কান্না’কাটি শুনতে পাননি, সেটাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

ধর্ষিতার মা পুলিশকে বলেন, আমি কারখানা থেকে বাড়ি ফিরি রাত পৌনে নয়টার দিকে। শুক্র’বারও ফিরেছিলাম ওই সময়। কিন্তু এতটাই ক্লান্ত ছিলাম যে, শোওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই অঘোরে ঘুমিয়ে পড়ে’ছিলাম।

Leave a Reply

x