করোনা ভ্যাকসিন আবিষ্কারে সুসংবাদ দিলো চীন, যা করোনা প্রতিরোধে শতভাগ কার্যকর

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস বিশ্বের প্রতিটি দেশে ছড়িয়ে গেছে।

এই করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে প্রতিটি দেশের বিজ্ঞানীরা মরিয়া হয়ে উঠেছে, করোনা ভাইরাসের মরণ ছোবল থেকে গোটা পৃথিবী কে বাঁচাতে হলে আগে এর প্রতিষেধক আবিষ্কার করতে হবে।

করোনার এই কঠিন পরিস্থিতিতে চীন বিজ্ঞানীরা আশার আলো দেখালেন,
তারা বলেছেন করোনা প্রতিশোধ হিসেবে তারা যে ভ্যাকসিন আবিষ্কার করেছে তার শতভাগ কার্যকর হবে।

চীন বিজ্ঞানীরা দাবি করেছেন, বানরের শরীরে তাদের উদ্ভাবিত নতুন করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগ করে তারা শতভাগ সাফল্য পেয়েছে।
ভাইরাস প্রতিরোধী হিসেবে এই ভ্যাকসিন তৈরি করা হয়েছে।

কোন প্রাণীর দেহে এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হলে, তাতে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়ে যায়, যা যে কোন ভাইরাস ধংসে শতভাগ কার্যকর হবে।

করোনা ধ্বংসকারী ভ্যাকসিন টির নাম দেওয়া হয়েছে প্যাক ‘পিকোভ্যাক’, বেইজিংভিত্তিক প্রতিষ্ঠান সিনোভ্যাক বায়োটেক এ ভ্যাকসিন তৈরি করেছে।

মার্চের শুরুর দিকে এই ভ্যাকসিনের ট্রায়াল কাজ শুরু হয়,
একদল বানরের ওপর এই ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হলে, পরবর্তীতে দেখা যায় ওই ওই বানর গুলির দেহে এক প্রকার অ্যান্টিবডি তৈরি হয়,
যা করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সক্ষম।

ভ্যাকসিন দেওয়া বানরগুলো করোনা ভাইরাসের সংস্পর্শে না হলে, এক সপ্তাহ পর দেখা যায় তারা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়নি।

উল্লেখযোগ্য, করোনার ভ্যাকসিন আবিষ্কারের জন্য প্রতিটি দেশের বিজ্ঞানীরা গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছে,
কর্ণার ভ্যাকসিন আবিষ্কারের জন্য ঝুঁকি নিয়ে তারা মানবদেহে এবং বিভিন্ন প্রজাতির প্রাণীর উপর প্রয়োগ করে যাচ্ছে।

এর মধ্যে কিছু কিছু ভ্যাকসিন আশার আলো দেখিয়েছে আবার কিছু কিছু ভ্যাকসিন কার্যকর হয়নি।

Articles You May Like

Leave a Reply

x