করোনা ভাইরাস থেকে সুস্থ হয়েই বেয়াদবি করলেন ‘শহীদ আফ্রিদি’!

ক্রিকে’টার হিসেবে খেলার মাঠে ও মাঠের বাইরে সমান জনপ্রিয় তিনি। মূলত বোলিং অলরা’উণ্ডার হলেও একটা সময় ব্যাট হা’তে ছিলেন ধুন্ধুমার। প্রতিপ’ক্ষের বোলারকে রীতিমত চার-ছক্কায় কচুকাটা করতেই বেশি স্বাচ্ছ’ন্দ্য বোধ করতেন ড্যাশিং ওপেনার।

একইসঙ্গে ভারত’বিরোধী স্লোগান দিতেও তিনি ভাল’বাসেন। যে কোনও মঞ্চ থেকেই ভারতের বিরুদ্ধে মন্তব্য করেন তিনি। যে কারণে অধিকাং’শ ভারতী’য়ের কাছেই সমা’লোচনার পাত্র তিনি।

সম্প্রতি করোনায় আক্রা’ন্ত হওয়ার পর সে সব কয়েকদিন বন্ধ থাকায় ভারতী’য়রাও তাঁর সুস্থতা কামনা করেন। কিন্তু এ’খন তিনি কিছুটা সুস্থ। তাই আবার ফিরে’ছেন স্বমহিমা’য়। বলছিলাম- পাকি’স্তানের প্রাক্তন তারকা ক্রিকেটার শাহীদ আফ্রি’দির কথা।

করোনা মুক্ত হতেই টুইট করেন আ’ফ্রিদি। আর তাঁর সেই টুইটেই তেঁতে ওঠে ভারতীয় গণমাধ্যম। আজ রোববার (৫ জুলাই) আফ্রিদিকে নিয়ে করা এক প্রতিবে’দনের শিরো’নামটা এরকম- “পাকিস্তানের কাছে মাফ চাইত ভারত, সুস্থ হয়েই বেয়াদবি শুরু করে দিলেন আফ্রিদি”।

তাদের সেই প্রতিবেদনে আফ্রিদির টুইট উল্লেখ করে বলা হয়- আফ্রিদি বললেন, ‘আমি সব সময় ভারতে’র বিরুদ্ধে খেলতে পছন্দ করতাম। ভারত আর অস্ট্রেলিয়া, দুটি দল’কেই ওদের কন্ডিশনে হারানো কঠিন।

তবে আমরা ভারত’কে এতবার, এতভাবে হারিয়েছি যে- শেষের দিকে ভারতীয় ক্রিকেটাররা আমাদের কাছে এসে মাফ চাইতো। আমা’দেরও ভার’তের বিরুদ্ধে চাপ নিয়ে খেলতে হতো। কিন্তু ওই চাপ নিতে আমাদের ভাল লাগত। তবে, এই দুটো দলকে হারা’নোর মজাই আলাদা ছিল।’

এরপরই পাক অধিকৃত কাশ্মীরে গিয়ে আফ্রিদি যে ভারতবিরোধী স্লোগান দিয়েছিলেন, সেই কথা উল্লেখ করে ওই প্রতি’বেদ’নে বলা হয়- সেইসঙ্গে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে নিয়েও কুরুচিকর মন্তব্য করেছিলেন তিনি। খোলা মঞ্চ থেকে ভাষণ দিয়েছি’লেন। মুখে মাস্কও ছিল না আফ্রিদির।

এমনকী তাকে ঘিরে থাকা লোকজনের মুখেও মাস্ক ছিল না তখন। এর পরই করো’নায় আক্রান্ত হন আফ্রিদি। নিজেই জানিয়ে’ছিলেন অসুস্থতার কথা। কয়েক’দিন পর গুজব রটে, আফ্রিদি নাকি করোনার সঙ্গে যুদ্ধে পেরে উঠছেন না।

তার শারীরি’ক অব’স্থা অত্যন্ত খারাপ হয়েছে। এর পর আবার তিনি টুইট করে নিজের শারীরিক অবস্থার কথা জানান। সঙ্গে এটাও জানান, তিনি এখন আগের থেকে অ’নেকটাই ভাল আছেন। তাই কেউ যেন গুজবে কান না দেন! আর সুস্থ হয়েই আবার বেয়া’দবি শুরু করে দিলেন আ’ফ্রিদি।

সম্প্রতি একটি ইউটিউব শো-তে পাকিস্তানের প্রাক্তন অলরা’উন্ডার এও জানিয়েছেন, ১৯৯৯ সালে ভারতের বিরুদ্ধে টেস্টে করা ১৪১ রানের ইনিংসটি তিনি কখনও ভুলতে পারবেন না। শো-তে অতিথি হিসাবে আফ্রিদি বলেছেন, ‘ওটাই আমার কেরিয়া’রের স্মরণীয় ইনিংস।

আ’মার তো ভারতে ওই ম্যাচ খেল’তে যাওয়ারই কথা ছিল না। ওয়া’সিম আকরাম ভাই নির্বাচকদের সঙ্গে লড়াই করে আমা’কে দলে নেন। প্রথমে তো আমাকে দল থেকে বাদ দেওয়া হয়েছিল। তবে এটা ভেবে ভালো লাগে যে, আমি ওয়াসিম ভাইয়ের মুখর’ক্ষা করতে পেরেছি’লাম।’

Articles You May Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *