করোনার ত্রাণ নিতে গিয়ে ইউপি সদস্যের কাছে ধর্ষণের শিকার হলেন গৃহবধূ,

বরগুনার তালতলীতে কোন ভাইরাসের কারণে খাদ্য সংকটে পড়ে একটি পরিবার।

ওই পরিবারকে ত্রাণ দেওয়ার তালিকাভুক্ত করেন ইউপি সদস্য আনোয়ার খান।

ইউপি সদস্য আনোয়ার খান সুবহানের মেয়েকে ত্রাণ দেওয়ার নামে বাড়িতে ডেকে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া যায়।

সূত্রে জানা যায়, উপজেলার শারিকখালী ইউনিয়ের পূর্ব বাদুরগাছা এলাকায় করোনা ভাইরাসের কারণে দিনমজুর সোবাহান খাদ্য সংকটে পড়েন।

৬ এপ্রিল বিষয়টি ইউপি সদস্য আনোয়ার খান কে জানালে,
সরকারি সহায়তা তালিকাভুক্ত করার জন্য আনোয়ার এর কাছে যায় সুবহান ।

আনোয়ার সুবহানের মেয়েকে ভোটার আইডি কার্ড নিয়ে আসতে বলেন।

পরেরদিন ৭ই এপ্রিল সোহানের মেয়ে ভোটার আইডি কার্ড নিয়ে ইউপি সদস্য আনোয়ারের বাড়িতে গেলে জোরপূর্বক তাকে ধর্ষণ করে।

ওই সময় ওই মেয়ের স্বামী আনোয়ারের বাড়িতে যায়ে এসব কর্মকাণ্ড দেখে ফেলে।

বিষয়টি জানাজানি করলে তাকে খুনের হুমকি দেওয়া হয়।

পরে ভুক্তভোগীর পরিবার থানায় মামলা করতে চাইলে তাকে গ্রাম ছাড়ার হুমকি দেয় আনোয়ার।

পরের দিন ওই মেয়ের স্বামী কে তুলে নিয়ে যায় ইউপি সদস্য আনোয়ার।

আনোয়ারের এসব কর্মকাণ্ডে হতবাক এলাকাবাসী।
বিচারের দাবি করেন এলাকার সচেতন মহল।

ভুক্তভোগী আনোয়ার বলেন আমার বিরুদ্ধে এসব মিথ্যা অপবাদ।

আমার বিরুদ্ধে এই ঘটনাটি একটি সাজানো নাটক।

Articles You May Like

Leave a Reply

x