আসামে মুসলিমদের উচ্ছেদ করে শিবমন্দির নি’র্মাণ, প্রতিবাদ করায় পুলিশের গুলিতে (নিহত ২)

আসামে মুসলিমদের উচ্ছেদ করে শিবমন্দির নি’র্মাণ, প্রতিবাদ করায় পুলিশের গুলিতে (নিহত ২)

 

ভারতের উ’ত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য আ’সামে একটা সুবিশাল শিবমন্দির নির্মাণের জন্য’ হাজার হাজা’র বাঙালি মুসলিমকে তাদের ভিটেমাটি থেকে উচ্ছেদ করা ‘হয়েছে।’ ভিটেমাটি ফিরে পেতে আশ্রয়চ্যুতরা বিক্ষোভ করলে’ পুলিশ”‘ গুলি চালায়। এতে অন্তত দুজন নিহত এবং আরও বেশ কয়েকজন আ’হত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) আসামের ‘দরং ‘জেলায় এ ঘটনা ঘটে।’

জানা যায়, দরং জেলার ধলপুর গ্রামে “হিলস ও সিপাহঝাড় এলাকায় প্রায় ৭৭ হাজার বিঘা জমি দখল করে বিশাল একটি শিবমন্দির কমপ্লেক্স বানানোর জন্য গত কয়েক “মাস ধরেই আসাম সরকার সেখানে দফায় দফায় উচ্ছেদ অ’ভিযান চালাচ্ছে। সেই ভিটেমাটি-হারানোরা ব’লছেন, তাদের সব ধরনের সরকারি নথি ও পরিচয়পত্রই আছে। সবশে’ষ গত সোমবার ওই অঞ্চলের প্রায় ৮০০ পরিবারের বেশ কয়েক হাজার মানুষকে তাদের ভিটেমাটি থেকে উচ্ছেদ% করে সেই জ’মি খালি করা হয়। তার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার দরংয়ে উচ্ছেদ-বিরোধী কমিটির জমায়েতে পুলিশ গুলি চালায়। এতে বি’পুল সংখ্যাক মানুষ হতাহত হয়েছে।%

স্থানীয় সাংবাদিক দেবব্রত দত্ত বলেন, উচ্ছেদের বিরুদ্ধে যে সেল গড়ে তোলা হয়েছে তাদের ডাকে ধলপুর “১, ২ ও ৩ নম্বর গ্রামের বেশ কয়েক হাজার মানুষ বৃহস্পতিবার জড়ো হয়েছিলেন – সেখানে পুলিশের হামলায় অন্তত জনাদশেক’ ব্যক্তি গুলিবিদ্ধ হয়েছে বলে আমরা জানতে পারছি। তাদের ‘মধ্যে অন্তত দুজন নিহত হয়েছে, একজনের লাশের ছবি ‘সোশ্যাল মিডিয়াতেও ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে।”

তিনি আরও বলেন, উচ্ছেদ হওয়া মানুষরা ‘প্রায় সবাই বাঙালি মুসলিম যারা বহু দশক ধরে ধলপুরের চরাঞ্চলেই বসবাস করছেন।’

রহিমা শেখ নামে এক নারী বলেন, নদীর বু’কেই বারবার ঘর বাঁধি আর সেই নদীর বুক থেকেই বারবার আ’মাদের খ্যাদায়ে দেয়। অথচ আমাদের কাগজপাতি সব আছে- এনআরসি, প্যান কার্ড। নিজেরা খাই বা না-খাই সরকারি খাজনা ঠিকই ‘দিয়ে যাচ্ছি। সেই তিরাশি সালেরও কত আগে থেকে আমরা এখানে থাকতেসি। তহন এইহানে মন্দির-টন্দি’র কিসুই আসিল না, ছোট্ট একটা পাহাড় আসিল শুধু!’

Leave a Reply

x