আলহামদুলিল্লাহ! দীর্ঘ ৮৬ বছর পর তুরস্কের ‘হাজিয়া সোফিয়া’ মসজিদে শুক্রবারে নামাজ অনুষ্ঠিত হবে!

শুক্রবার জুমার নামাজে’র মধ্য দিয়ে দীর্ঘ ৮৬ বছর পর মসজিদ হিসেবে আবারও যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে তুর’স্কের ঐতিহাসি’ক শহর ইস্তাম্বুলে অবস্থিত ঐতিহ্যবাহী হাজিয়া সোফিয়া।

জামাতে অন্যান্য মুসল্লি’দের সঙ্গে দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসে’প তাইয়্যিপ এরদোয়ানও অংশ নিতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বৃহস্পতি’বার ইস্তাম্বুলের গভর্নর আইকনি’ক আলী ইয়ারলিকায়ার বরাত দিয়ে তুর্কি গণ’মাধ্যম ইয়েনি শাফাকের খবরে বলা হয়, প্রত্যে’কে উৎসাহের সঙ্গে বিশেষ প্রার্থনায় অংশ নেয়ার অপেক্ষায় আছেন।

শুক্রবার জুমা’র নামাজের মধ্য দিয়ে দীর্ঘ ৮৬ বছর পর মসজিদ হিসেবে আবা’রও যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে হাজিয়া সোফিয়া।

আইকনিক আলী ইয়ারলি’কায়া বলেন, করোনা’ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে মুসল্লিদের প্রবেশের জন্য মাত্র ৫টি দরজা উন্মু’ক্ত থাকবে। শুক্রবার স্থানীয় সময় সকাল ১০টা থেকে প্রবেশ পথ খুলে দে’য়া হবে।

তবে প্রতিটি প্রবেশ পথে মুসল্লিদের অন্তত ১১টি নিরাপত্তার পয়েন্ট অতি’ক্রম করতে হবে। সবার জন্য মাস্ক পরিধান বাধ্যতামূলক।

প্রসঙ্গত, হাজিয়া সোফিয়া সর্বপ্র’থম গীর্জা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়। টানা ৯১৬ বছর এই ঐতিহাসিক স্থাপনাটি গীর্জা হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে। পরে ১৪৫৩ সাল থেকে শুরু করে ১৯৩৪ সাল পর্যন্ত প্রায় ৫০০ বছর এটি মসজিদ হিসে’বে ব্যবহৃত হয়।

এরপর ১৯৩৪ সালে এটি’কে জাদুঘরে রূপান্তরিত করে তৎকালীন কথিত ধর্মনিরপেক্ষ সরকার। তখন থেকেই স্থাপনাটি দেখতে সারা বছরই দেশি-বিদে’শি পর্যটকরা ভিড় করতে শুরু করেন।

সেই ধারাবাহিক’তায় ১৯৮৫ সালে এটিকে বিশ্ব ঐতিহ্য তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করে ইউ’নেস্কো। গত ৮৬ ধরে হাজিয়া সোফিয়া জাদুঘর হিসেবে’ই বিশ্বব্যাপী পরিচিতি পায়। গত ১০ জুলাই তুর্কি আদালতে’র রায়ে স্থাপত্যটির জাদুঘরের মর্যাদা প্রত্যাহার করায় এটিকে আবারও মসজি’দে রুপান্তর করা হলো।

Articles You May Like

Leave a Reply

x