আবার কেন দলে সেই বিজয়?

এনামুল হক বিজয় তার ক্রিকেট ক্যারিয়ার ছয় বছর পাড় হয়ে সাতে এসেছেন।অভিষেকের পর থেকেই দলে নিয়মিত সদস্যে ছিলেন তিনি,২০১৫ সালের বিশ্বকাপে স্কটল্যান্ডের সাথে সেই ইনজুরি তাকে দল থেকে ছিটকে দেয়!ইনজুরি থেকে ফিরে টিকতে পারেননি দলে।কারণ তিনি যখন ফিরেন তখন তার জায়গা দখল করে নেয় আরেক ওপেনার সৌম্য সরকার।

কিন্তু বছর না পেরোতেই আবারো দলে বিজয়, তাও আবার তার জায়গা দখল করে রাখা সৌম্যকে হটিয়ে দলে ঢুকে পড়েন তিনি!জিম্বাবুয়ের সাথে টি-টোয়েন্টি সিরিজ দিয়ে আবারো জাতীয় দলের জার্সি গায়ে ফিরেন বিজয়।কিন্তু ফেরাটা হলো না উজ্জ্বল।প্রথম ম্যাচেই রান আউটের ফাদে পড়ে দুই বলে এক রান করে ফিরেন তিনি।দ্বিতীয় ম্যাচে চেয়েছিলেন একটা ভালো ইনিংস খেলে দলে টিকে যেতে।ওই সময় তখন আবার বিসিবির নির্বাচকরা দেখতেন!যে একটা ফিফটি করবে তার জন্য আগামী পাঁচ ম্যাচে দলে থাকা নিশ্চিত।সেই লক্ষ্য নিয়েই বিজয় মাঠে নেমেছিলেন ওই যে একটা ভালো ইনিংস খেলতে হবে দলে টিকে যাবার জন্য!এরপর বিজয় এমন এক ইনিংস খেলে দিলেন যা তার জন্য ভালো ছিলো।কিন্তু দলের জন্য এক ভয়ানক ইনিংস ছিলো,৫১ বলে ৪৭ রান।তিনি হয়তো ভুলেই গিয়েছিলেন তিনি টি-টোয়েন্টি না ওয়ানডে খেলতে নেমেছিলেন।

এরপর দীর্ঘ আড়াই বছর পর মানে গতবছর দলে ফিরেন বিজয়।শ্রীলঙ্কা জিম্বাবুয়ের সাথে আয়োজিত ট্রাইনেশন সিরিজে ডাক পান তিনি।তাকে দলে নেওয়ায় কম সমালোচনার মুখে পড়তে হয়নি নির্বাচকদের!সেই সমালোচনা শুরু কিছুটা জবাব দিতে নেমেছিলেন বিজয়,জিম্বাবুয়ের সাথে প্রথম ম্যাচে শুরুটা ভালোই করেন তিনি।কিন্তু এক ভুল শটে বিদায় নিতে হয় তাকে,এরপরের ম্যাচের চিত্রগুলো একেবারেই ভিন্ন।শ্রীলঙ্কার সাথে খেলতে নেমে কয়েকবার জীবন পান,কিন্তু সেই ব্যর্থতার পরিচয়ই দেন তিনি!সমালোচনা তার পিছু নেয় কেনো তার প্রমাণ দিলেন ওই সিরিজ জুড়ে।এরপর আবারো দল থেকে বাদ পড়তে হয় বিজয়কে।

কিন্তু গতবছর জুলাইয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ডাক পান বিজয়।সৌম্য টানা খারাপ করায় দলে আসেন তিনি,ক্যারাবীয়দের সাথে প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমে এনামুল উপহার দেন এক ডাক।যা ক্যারিয়ারের জন্য এক লজ্জাজনক ব্যাপার!এরপরের ম্যাচের ইনিংস গুলোই তাকে আবার দল থেকে ছিটকে দেয়।তিনি ছিলেন বিশ্বকাপ দলের বিবেচনায় কিন্তু হতাশ করলেন নির্বাচকদের।

এখন আসি আসল কথায় এতো ব্যর্থতার পরিচয় দেবার পরও কেনো দলে আসেন তিনি।কি দেখে তাকে শ্রীলঙ্কা সফরে নেওয়া হচ্ছে,ওই আফগানিস্তান এ দলের সাথে একটা সেঞ্চুরি মারছে তাই আবার দলে অন্তর্ভুক্তি করা হলো তাকে!কই বিপিএলে রানের পর রান করেও দলে জায়গা হচ্ছে না ইয়াসির আলীর।আবার ডিপিএলে রান বন্যা বইয়ে দিয়েও কেনো দলে আসছেন না সাইফ হাসান।কেনো ওই বিজয়কেই আনতে হবে দলে!নতুন কাউকে নিয়ে ভাবতে পারেনা নির্বাচকরা।এই সিরিজটাই নতুন কাউকে বাজিয়ে দেখা যেতে পারতো না।সেই ঘুরে ফিরে বিজয়ের কাছেই যেতে হয় আপনাদের!আশা করি শ্রীলঙ্কা সফরেই শেষ হবে বিজয় অধ্যায়।

রিপোর্ট – Md Rafi Islam

Articles You May Like

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *